রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫১ অপরাহ্ন

নোটিশ:
দৈনিক চেকপোস্ট পত্রিকায় সারাদেশে জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। সাংবাদিকতায় আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন। ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত ই-মেইল করুন-checkpost2015@gmail.com এ। প্রয়োজনে-০১৯৩১-৪৬১৩৬৪ নম্বরে কল করুন।
মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক এমপি আলীম উদ্দিনের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকীতে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক এমপি আলীম উদ্দিনের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকীতে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক এমপি আলীম উদ্দিনের

৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকীতে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি:: নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি, জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি, সৈয়দপুর ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক এবং স্বাধীনতা উত্তর নীলফামারী-৪ আসনের প্রথম জাতীয় সংসদ সদস্য সকলের প্রিয় জননেতা মরহুম আলিম উদ্দিন’র আজ ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। ১৮ আগস্ট রবিবার সন্ধায় বাদ মাগরিব স্থানীয় আওয়ামীলীগ অফিসে আয়োজিত উপস্থিত ছিলেন মরহুমের সহধর্মিনী নীলফামারী জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য (এমপি) ও নীলফামারী জেলা মহিলা সংস্থার সভানেত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নীলফামারী জেলা সভানেত্রী রাবেয়া আলীম, তার পুত্র ইঞ্জিনিয়ার রাশেদুজ্জামান আলীম, সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র আখতার হোসেন বাদল, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকী, পৌর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জোবায়দুর রহমান শাহীন, বণিক সমিতি সভাপতি ঈদ্রিস আলী, তাঁতী লীগ সৈয়দপুর শাখার সভাপতি ও প্রজন্ম’৭১ এর সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩ কাজী জাহানারা পারভীন (৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড) সহ উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনসমুহের নেতাকর্মীবৃন্দ।

আলীম উদ্দিন প্রসঙ্গে জোবায়দুর রহমান শাহীন স্মৃতি চারণ পূর্বক জানান, তিনি রাজনৈতিক পরিচয়ের বাহিরেও অনেক পরিচয়ে পরিচিত ছিলেন। আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত, আনজুমানে গাওসিয়া, শিল্প সাহিত্য সংসদ, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা, হোমিওপ্যাথিক কলেজ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৯৬৫ সালে সৈয়দপুর সরকারী কারিগরী মহাবিদ্যালয় কোন ভাষায় চালু হবে এবং কায়দে-আজম কলেজে বাংলা মিডিয়ামে পরীক্ষা দেয়াকে কেন্দ্র করে বাঙালী-বিহারী দাঙ্গা হাঙ্গামায় জন্ম নেয় সৈয়দপুর ছাত্রলীগ। ১৯৬৬ সনের ১ জানুয়ারি রবিবার সকাল ১০টায় শিল্প সাহিত্য সংসদের হলরুমে চিরিরবন্দরের মাহাতাব সরকার, দিনাজপুরের আমজাদ এমপি ও মাহমুদুর রহমানের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা হয়। এতে সভাপতি নির্বাচিত হন আলিম উদ্দিন।

১৯৭০ সালে ঢাকায় অবস্থানকালে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতাদের সাথে ঘনিষ্ঠতা বাড়তে থাকে। ঢাকার রাজপথে মিছিলে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছিলেন তিনি।১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে জাতির জনকের দেয়া স্বাধীনতার ভাষণে সরাসরি অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি। এ ছাড়া ২৩ মার্চ ৬ ও ১১ দফা ভিত্তিক গণআন্দোলনে  সৈয়দপুরের স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে জাড়ালো ভূমিকা রাখেন আলিম উদ্দিন। ফলশ্রুতিতে সরকার সান্ধ্য আইন জারি করেন।

আলিম উদ্দিনের ছিল একটি অত্যন্ত সংবেদনশীল ও সুরুচিপূর্ণ মন। পোষাকে আশাকে তাঁর যে সযতœ পরিপাট্য এবং মার্জিত রুচির পরিচয় সর্বদা ফুটে উঠতো, তা তাঁকে এক অসাধারণ চারিত্রিক উজ্জ্বল্য ও অনুপম সৌন্দর্যের অধিকারী কওে রেখেছিল সারা জীবন। পরিচ্ছেদের পরিচ্ছন্নতা ও শুচিতা তাঁর হৃদয়কেও করেছিলেন পরিচ্ছন্ন ও শুভ্র। সাদা মনের মানুষ ছিলেন তিনি। কাউকে কষ্ট দিয়ে কথা বলতেন না। কারো সাথে যদি কোন বিষয়ে তর্ক হত, পরবর্তীতে তিনিই আগ বাড়িয়ে কথা বলতেন। তাঁর সেই চিরচেনা পাজামা পানজাবী, ভিন্ন রংয়ের মুজিব কোর্ট আজও সবার চোখে ভাসে, তাঁর চিরচেনা জিজ্ঞাসা,’কি ওে কেমন আছিস? অথবা’ বাসায় আসিস কথা আছে’ আজও মনে পড়ে।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Checkpost Media
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!