শুক্রবার, ১০ Jul ২০২০, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে আলোচনায় চেয়ারম্যান মুসা! চাল চুরির সত্যতা যাচাই বাচাই পূর্বক সু-ষ্পষ্ট মতামত দিতে জেলা প্রশাসককে নির্দেশ! ঢাকার বুকে মাটির ১১১ ফুট নিচে হচ্ছে পাতালরেল হবিগঞ্জে গরুর খামারে সফল কাউসার মিয়া শায়েস্তাগঞ্জে আটটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১০৭ জন শিক্ষক- কর্মচারী প্রনোদনা পেল আ’লীগকে ক্ষমতায় রাখতেই দল নিবন্ধন আইন করার উদ্যোগ সন্তান দত্তক নিয়ে গৃহকর্মী বানালেন বাবা-মা সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই চুনারুঘাটে ত্রান সহায়তা দিলেন সহোদর দুই ভাই ঈশ্বরদী থানার নবাগত ওসির সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা
‘হয়তো আমি কিংবদন্তি হতে পারিনি, কিন্তু যোগ্য সম্মানটা তো আমার প্রাপ্য’

‘হয়তো আমি কিংবদন্তি হতে পারিনি, কিন্তু যোগ্য সম্মানটা তো আমার প্রাপ্য’

২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকেই মাশরাফি বিন মর্তুজার অবসর নিয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। সংবাদ মাধ্যম, সমর্থক এমনকি খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) মাশরাফিকে আকারে-ইঙ্গিতে অবসর নেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে।

আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর না নিলেও ওয়ানডে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি। এতদিন এসব নিয়ে চুপ থাকলেও অবশেষে মুখ খুললেন দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল এই দলনেতা।

‘ক্রিকবাজ’ কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মাশরাফি বলেন, ‘সত্যি বলতে কি, মনে হচ্ছে সবার মধ্যে আমাকে বিদায় করে দেওয়ার তাড়া দেখা যাচ্ছে এবং এটা খুব যন্ত্রণাদায়ক। আমাকে বিদায় জানানোর জন্য তাদের একটা বিদায়ী ম্যাচ আয়োজন করা উচিত ছিল এবং এটা কোনো সাধারণ ম্যাচ নয়- সাধারণ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ এক ব্যাপার এবং তাড়াহুড়ো করে একটা বিশেষ ম্যাচ আয়োজন আলাদা ব্যাপার। বিসিবি বিশেষ একটি ম্যাচের জন্য ২ কোটি টাকা ব্যয়ের প্রস্তুতি নিয়েছিল। এইদিক থেকে এটাকে সঠিক সিদ্ধান্ত বলা যায় না, কারণ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের খেলোয়াড়রা যথেষ্ট বেতন পায় না। সেখানে আমার জন্য একটি ম্যাচের জন্য ২ কোটি টাকা ব্যয় শোভনীয় নয়।’ মাশরাফি জানান, ২০১৯ বিশ্বকাপের পর ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন। তখন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। বিসিবি প্রধানও তাতে সম্মতি জানিয়েছিলেন। আলোচনা সেখানেই শেষ হয়ে গিয়েছিল, কিন্তু ওই আলোচনায় উপস্থিত না থাকা অনেকে মিডিয়াতে অনাকাঙ্ক্ষিত মন্তব্য করেন। মাশরাফি বলেন, ‘তারা আমার বেতন নিয়ে কথা বলেছে, তাদের প্রশ্ন কোনো রিটার্ন ছাড়াই কেন বোর্ড আমাকে বেতন দেবে? আমি কি তাহলে ১৮ বছর শুধু টাকার চিন্তা করে খেলেছি? আমি যদি টাকার কথা চিন্তা করতাম, তাহলে আমার হাতে তখন অনেক সুযোগ ছিল। আমি টাকার জন্য ক্রিকেট খেলিনি। শুধু তাই না, তারা গুজব ছড়ায় বিশ্বকাপে নাকি বাংলাদেশ দল সাড়ে ৯ জন খেলোয়াড় নিয়ে খেলেছে। আপনার কি মনে হয়, এটা আমার প্রাপ্য?’ মাশরাফি আরও বলেন, ‘হঠাৎ করেই আমাকে বিদায় করে দেওয়ার তাড়া শুরু হয়ে গেল। আমি শুধু এটাই জানি আমি ক্রিকেটের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছি, যদিও আমার ভেতরটা ফেটে যাচ্ছিল এবং হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। টাকাই যদি সব হতো, আমি অনেক কিছুই করতে পারতাম, যখন ইনজুরির কারণে আমার ক্যারিয়ার শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল। এমনকি আমি ইন্ডিয়ান সুপার লিগেও (আইসিএল) খেলতে যাইনি, অথচ সেখানে খেলার জন্য ৮ কোটি টাকা অফার করা হয়েছিল। আমি তা করিনি। আমি জীবন দিয়ে ক্রিকেট খেলেছি এবং হয়তো আমি কিংবদন্তি খেলোয়াড় হতে পারিনি, কিন্তু যোগ্য সম্মানটা তো আমার প্রাপ্য।’

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Checkpost Media
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!