শুক্রবার, ০৫ Jun ২০২০, ০৮:৩৩ অপরাহ্ন

মাধবপুরে শেষ মুহূর্তে ঝুঁকি নিয়ে ঈদের কেনাকাটায় ছুটছে মানুষ

মাধবপুরে শেষ মুহূর্তে ঝুঁকি নিয়ে ঈদের কেনাকাটায় ছুটছে মানুষ

লিটন পাঠান, মাধবপুর প্রতিনিধি::
হবিগঞ্জের মাধবপুরে শেষ মুহূর্তে ঝুঁকি নিয়ে ঈদের কেনাকাটায় ছুটছে মানুষ রোজা ২৯টি হলে রাত পোহালেই খুশির ঈদ আর রোজা ৩০টি হলে একদিন পরেই পালিত হবে ঈদ খুশির ঈদ দুয়ারে কড়া নাড়ায় করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি নিয়েই শেষ মুহূর্তে ঈদের কেনাকাটা করতে মার্কেটে মার্কেটে ছুটছেন মাধবপুর উপজেলার বাসিন্দারাসহ বিভিন্ন উপজেলার এখন বাসিন্দাদের একটি অংশ মার্কেটে ভিড় করায় করোনাভাইরাসে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে, মাধবপুর উপজেলা ‌প্রসাসনের পক্ষ থেকে বারবার সতর্ক করা হলেও মার্কেটে ছুটে যাওয়া মানুষগুলো সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি খুব একটা মানছেন না কেউ কেউ ছোট বাচ্চা নিয়ে ভিড় ঠেলে মার্কেটে ঢুকছেন।
শনিবার (২৩-মে) সকালে মাধবপুর উপজেলার পৌর বাজারে বিভিন্ন মার্কেটে গিয়ে দেখা যায়, মার্কেটের প্রবেশ গেটে জীবানুনাশক ট্যানেল বসানো হয়েছে কেউ কেউ এই ট্যানেলের ভেতর দিয়ে মার্কেটে প্রবেশ করছেন আবার অনেকেই ট্যানেলের ভেতর না ঢুকে পাশ দিয়ে চলে যাচ্ছেন কেউ কেউ মোটরসাইকেল নিয়ে ট্যানেলের পাশ দিয়ে মার্কেটের চত্বরে ঢুকে পড়ছেন।
এভাবে ঝুঁকি নিয়ে মাধবপুর উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মার্কেটটিতে মানুষ ছুটে আসায় উদ্বেগ প্রকাশ করছেন আশপাশের বাসিন্দারা।
তারা বলছেন মানুষের মধ্যে কোনো ধরনের সচেতনতা নেই প্রতিদিন মার্কেট করতে মানুষ ঝহুমড়ি খেয়ে পড়ছে সকালে ভিড় কম থাকলেও দুপুরের দিকে এক প্রকার ঢল নামে। এতে যারা মার্কেট করতে আসছেন তারা যেমন নিজেদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলছেন, তেমনি আশা পাশের বাসিন্দাদেরও ঝুঁকিতে ফেলছেন ছোট বাচ্চা নিয়ে মার্কেটটিতে আসা ছোটু মিয়া বলেন, নতুন পোশাকের জন্য বাবু কান্নাকাটি করছিল। তাই ওকে নিয়ে এসেছি সকালে ভিড় কম থাকে, তাই সকালে এসেছি ভিড় বাড়ার আগেই কেনাকাটা শেষ করে ফিরে যাব ঈদের পোশাক কিনতে আসা মারিয়া বলেন, আমি মার্কেট করতে এই মার্কেটে খুব একটা আসি না নিউমার্কেটে বেশি যাই কিন্তু এবার নিউমার্কেট বন্ধ তাই এখানে এসেছি অনেক বাছাবাছি করে দুটি ড্রেস কিনেছি তবে খুব একটা মনে ধরেনি তারপরও এই দিয়েই এবারের ঈদ চলে যাবে।
করোনা ভাইরাসের ভয় লাগেনা এমন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ঈদ তো চলেই এসেছে কাল না হয় পরশু ঈদ নতুন পোশাক ছাড়া ঈদের আনন্দ থাকে না। তাই এসেছি আর করোনার ভয়ে ঘরে বন্দি হয়ে থাকলে তো জীবন চলবে না এসব করোনার ভয় আমার লাগে না যার করোনা হওয়ার তার এমনিই হবে, তাছাড়া কার মৃত্যু কখন হবে তা আল্লাহ্ আগেই লিখে রেখেছেন,মৃত্যুর সময় হলে সিন্দুকে ঢুকে থাকলেও কেউ রক্ষা করতে পারবে না মাধবপুর পৌর বাজারে মার্কেটে প্রবেশ গেটের পাশে দাঁড়িয়ে আক্তার  নামের একজন রিকশাচালক বলেন, মাধবপুরে পৌর মার্কেটে প্রতিদিন প্রচুর মানুষ কেনাকাটা করতে আসে এতে আমাদেরও আয় একটু বেড়েছে আগে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থেকেও ভাড়া হতো না এখন আল্লাহর রহমতে বেশ ভালো ভাড়া হচ্ছে।
তিনি বলেন, সকালে মানুষের ভিড় তুলনামূলক কম হয় দুপুরে এলে দেখবেন এখানে মানুষে ঢল মাধবপুর মার্কেটের এক পোশাক বিক্রেতা( টিটু রায়) বলেন, মাধবপুর মার্কেটে নারীদের পণ্যসামগ্রী বেশি বিক্রি হয় ফলে এখানে যে ক্রেতারা আসেন তার বেশিরভাগই নারী। অন্য বছরের তুলনায় এবার আমাদের বিক্রি তুলনামূলক কম। ঈদের বিক্রি সাধারণত রোজার শুরু থেকেই শুরু হয়ে যায়। কিন্তু করোনার কারণে এবার তো প্রথমদিকে আমরা দোকানই খুলতে পারিনি। সরকার অনুমোদন দিলে ১০ তারিখ থেকে মার্কেট খোলা হয়। তবে প্রথমদিকে ক্রেতা তেমন একটা ছিল না। গত কয়েকদিন ধরে কিছু ক্রেতা আসছেন।
মাধবপুর বাজারের ব্যবসায়ী ৪জি কালেকশনের মালিক ( টিটু সরকার) বলেন, আমাদের সারা বছরের মূল ব্যবসা হয় রোজার ঈদ ও পহেলা বৈশাখে। এবার করোনার কারণে পহেলা বৈশাখে দোকান খুলতে পারিনি। ঈদে দোকান খোলার সুযোগ দেয়া হয়েছে অল্প কয়েকদিনের জন্য। কিন্তু করোনার কারণে এবার অন্য বছরের তুলনায় ক্রেতা কম। মাধবপুর বাজারে আসা ডিএসবির এসআই সাইকুল ইসলাম সুজন বলেন, প্রতিদিন মাধবপুরে হাজার হাজার মানুষ শপিং করতে আসছেন। সামাজিক দূরত্ব তো দূরের কথা, কারও মাঝে কোনো ধরনের সচেতনতা নেই তাদের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, এবার ঈদের কেনাকাটা করতে না পারলে আর জীবনেও পারবে না। মানুষ এমন অসচেতন হলে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা কঠিন হবে তিনি বলেন, এই মার্কেটে মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ছে কিন্তু পরিস্থিতি দেখার কেউ নেই মার্কেটে যারা আসছেন তারা তেমন নিজেদের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলছেন তেমনি আশপাশের মানুষদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিচ্ছেন। বিশ্বে প্রতিদিন এত মানুষের জীবন যাচ্ছে, তারপরও তাদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি হচ্ছে না।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Checkpost Media
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!