শুক্রবার, ০৫ Jun ২০২০, ০৯:২৭ অপরাহ্ন

শায়েস্তাগঞ্জের হাট বাজারে পুলিশ দেখলেই শাটার নামিয়ে দৌড়ে পালান দোকানিরা

শায়েস্তাগঞ্জের হাট বাজারে পুলিশ দেখলেই শাটার নামিয়ে দৌড়ে পালান দোকানিরা

২৯ মার্চ ১১ নং ব্রাহ্মণডুরা ইউপির পুরাইকলা বাজার থেকে তোলা এ ছবিটি।

শায়েস্তাগঞ্জের হাট বাজারে পুলিশ দেখলেই শাটার নামিয়ে দৌড়ে পালান দোকানিরা

এইচ আর রুবেল:: বিশ্ববাসী যখন করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত, তখন দেশের গ্রামগুলোর চিত্র ভিন্ন। ভাইরাসের ভয়াবহতা নিয়ে তেমন সচেতনতা নেই নিম্নবিত্তদের ভেতর। এখনো সন্ধ্যা হলে গ্রামের হাট-বাজারের চায়ের দোকানে বসে আড্ডা। এমন চিত্র হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অধিকাংশ এলাকায়।

সরেজমিনে উপজেলার সুতাং বাজার, বাছিরগঞ্জ বাজার, অলিপুর বাজার, পুরাইকলা বাজার ও কেশবপুর বাজারে দেখা গেছে উৎসবমুখর পরিবেশ। আতঙ্ক উপেক্ষা করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন গ্রামবাসী। বাজার করা, ওষুধ কেনাসহ বিভিন্ন অজুহাতে তারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এদিকে ২৯ মার্চ বিকালে স্থানীয় পুরাইকলা বাজারে গিয়ে দেখা যায় হাজারো লোকের ভীর। অধিকাংশ লোকের নেই মাস্ক।

অপরদিকে মাঠে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থানে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রিত হলেও খুব বেশি সচেতনতা বাড়ছে না। পুলিশ প্রশাসন কীভাবে কাজ করছে তা দেখতেও বাজারে ভিড় জমায় অনেক মানুষ।

সরেজমিনে এসব জায়গা ঘুরে আরও দেখা যায়, দোকানের একটি শাটার বন্ধ করে খুলে রাখছে অন্য শাটারের আংশিক অংশ। পুলিশ দেখলেই শাটার নামিয়ে দৌড়ে পালান দোকানিরা। এমন প্রেক্ষাপটে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে উপজেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

১১নং ব্রাহ্মণডুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হোসেইন মুহাম্মদ আদিল জজ মিয়া বলেন, ‘আমরা মানুষকে সচেতন করছি। প্রতিদিন আমি মাঠে কাজ করছি। ইউনিয়নসহ উপজেলাব্যাপী সচেতনতামূলক কাজ করছি এবং মাইকিংও করা হচ্ছে। 

‘তাছাড়া পল্লী গ্রাম এলাকা, অধিকাংশ মানুষই কম শিক্ষিত। হঠাৎ একটি রোগের কথা বলে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব নয়। যার যার অবস্থান থেকে সচেতন হওয়া প্রয়োজন। নিজের সুরক্ষা নিজেই করতে হবে। আমরা সার্বিক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি’।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Checkpost Media
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!