সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
নবীগঞ্জে রিকশা চালিয়ে সংসার চালায় শিশু শাহিনুর; ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম মাধবপুরে প্রাইভেটকার দিয়ে গাঁজা পাচারের সময় ২ পাচারকারী আটক সৈয়দপুরে জেলার ১ হাজার পরিবহন শ্রমিককে ত্রানের চাল প্রদান সৈয়দপুরে সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় দুইটি নৈশকোচ আটক সৈয়দপুরে পৌরসভার উদ্যোগে হতদরিদ্রদের মাঝে ১৫ মেট্রিক টন ত্রাণের চাল বিতরণ ঝুঁকি নিয়ে সাভার ছাড়ছে শ্রমিক মানিকহাট ইউনিয়নে হতদরিদ্র ৩ শতাধিক পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ মাধবপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে সেনাবাহিনীর তৎপরতা অব্যাহত ইসলামপুরে ডা.এম এম খান এর উদ্যোগে জীবাণুনাশক স্প্রে তজুমদ্দিনে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে জমি দখলের উদ্দেশ্যে গাছ কাটার অভিযোগ
সংবাদ সম্মেলনে অবসর প্রসঙ্গে রেগে গেলেন মাশরাফি

সংবাদ সম্মেলনে অবসর প্রসঙ্গে রেগে গেলেন মাশরাফি

ক্রীড়া প্রতিবেদক: এই সিরিজ শুরুর আগে থেকেই আলোচনায় মাশরাফির অবসর ইস্যু। এটাই কী অধিনায়কের শেষ আন্তর্জাতািক সিরিজ- এমন প্রশ্নও উচ্চারিত হচ্ছে জোড়েসোড়ে। অনুমেয়ভাবেই শনিবকার সিলেট সংবাদ সম্মেলনে এলে প্রশ্নই শুরু হলো এ প্রসঙ্গ দিয়ে। এরপর একই বিষয়ে অন্তত আরও অনন্ত পাঁচটি প্রশ্ন।

এতো প্রশ্ন সত্ত্বেও অবসরের বিষয়টি খোলাসা করলেন না মাশরাফি। বরং একই প্রসঙ্গে বারবার প্রশ্ন করায় বিরক্তও হলেন কিছুটা।

এরমধ্যে এসংক্রান্ত একটি প্রশ্নের সাথে ‘আত্নমস্মান’ আর ‘লজ্জ্বা’ শব্দ দুটি জুড়ে দিয়েছিলেন এক সাংবাদিক। এতে স্বভাবের বিপরীতে গিয়ে কিছুটা রেগেও যান মাশরাফি। রাগতস্বরেই বলেন- ‘আমি কি চোর? আমার লজ্জ্বা লাগবে কেনো? আন্তসম্মানে লাগবে কেনো? আমি কি মাঠে চুরি করি? আমি তো দেশের জন্য খেলি। আমার লজ্জ্বা কিসের? কতজন চুরি করছে। তাদের তো কেউ এ প্রশ্ন করে না।’

সাত মাস পরে জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ খেলতে যাচ্ছেন মাশরাফি। সংবাদ সম্মেলনে এসে মেজাজ ধরে রাখতে পারলেন না ঠাণ্ডা মেজাজের এই অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘এত জায়গায় এত চুরি-চামারি হচ্ছে, তাদের কোনো লজ্জা নেই। উইকেট আমি না-ই পেতে পারি। আমার সমালোচনা আপনারা করবেন, সমর্থকরা করবে। লজ্জা পেতে হবে কেন? আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে খেলছি যে আমাকে লজ্জা পেতে হবে।’

‘আমার সমালোচনা করুক, কিন্তু আত্মসম্মানবোধের প্রশ্ন আসছে কেন? আমি কী অন্য দেশের হয়ে খেলছি? তা তো না। সুতরাং এই জিনিসটার সঙ্গে আমি মোটেও একমত না।’ -যোগ করেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক।

বিশ্বকাপে ভালো সময় যায়নি মাশরাফির। ৮ ম্যাচে মাত্র একটি উইকেট পেয়েছিলেন অভিজ্ঞ এই পেসার। এমন পারফরম্যান্সে নানা সমালোচনা হজম করতে হয়েছে তাকে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তার দলে থাকা নিয়েও তৈরি হয় ধোঁয়াশা। মাশরাফি তার লম্বা ক্যারিয়ারের এমন সময় দেখেননি বললেই চলে।

তারউপর বিসিবি সভাপতি নাজমুল হক পাপনের একটি বক্তব্য আরও আলোচনার জন্ম দেয়। এটিই মাশরাফির শেষ আন্তর্জাতিক সিরিজ ক’দিন আগে এমন ইঙ্গীত দেন পাপন। তবে শনিবার সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়টি খোলাসা করেননি মাশরাফি। বরং বোর্ডের উপরই সিদ্ধান্ত ছেড়ে দেন।

বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কা সফরে যায় বাংলাদেশ। ওই সফরের আগেরদিন সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিলেও চোটের কারণে শ্রীলঙ্কা যাওয়া হয়নি মাশরাফির। সর্বশেষ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ৫ জুলাই পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেছেন তিনি। সেই হিসেবে সাত মাস পরে জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ খেলতে যাচ্ছেন মাশরাফি।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Checkpost Media
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!